Home / সম্পাদকীয়

সম্পাদকীয়

‘দু-পয়সার’ প্রথম বার্ষিকী ও ‘চটিচাটার’ চোখ রাঙানি

  দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় : বিখ্যাত সাংবাদিক রক্তিম ঘোষকে ধন্যবাদ জানিয়ে, এই রচনায় কয়েকটি কথা নিবেদন করব। রক্তিম, ত়াঁর ফেসবুক পোস্টে মনে করিয়েছেন যে আজ তৃণমূল নেত্রী মহুয়া মৈত্রের বিখ্যাত উক্তির প্রথম বার্ষিকী। বলা বাহুল্য, তবু বলি, হ্যাঁ এখানে ‘দু-পয়সার সাংবাদিক’ উক্তির কথাই হচ্ছে। সাংবাদিকদেরও যে একটা দাম আছে, মহুয়ার বক্তব্যে …

আরও পড়ুন »

মমতা-অভিষেকের দাক্ষিণাত্য অভিযান, বেঙ্গালুরুতে পিকে-র সঙ্গে বৈঠক কংগ্রেসের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর || Exclusive

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় :   এবার তাহলে কি মমতার দাক্ষিণাত্য অভিযান? এই মুহূর্তে তৃণমূল সূত্রে যা খবর, সম্ভাবনা সেই দিকেই। বেঙ্গালুরুতে বসে মমতার কুশলী সেনাপতি প্রশান্ত কিশোর (Prashanta Kishore) আজ, শুক্রবার, বৈঠকে বসেছেন কর্ণাটকের প্রথম সারির কংগ্রেস নেতা ও রাজ্যের এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে। কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসেছেন এবং এখনো কংগ্রেসে …

আরও পড়ুন »

শহীদ সম্মান না সংখ্যালঘু সাম্প্রদায়িকতা? কোন অঙ্কে নন্দীগ্রামে মমতা?

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনীতির কারবারীরা জানেন। সাধারণ মানুষ সে ভাবে জানেন না। কী? তাঁরা জানেন না। জানার কথাও নয়, যে শুভেন্দু তাঁর তৃণমূল জীবনে স্বাভাবিক ভাবেই ‘মমতার সৈনিক’ হলেও প্রথম থেকেই তিনি ছিলেন সোমেন মিত্রের বিশেষ স্নেহভাজন। কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্র, তৃণমূল-প্রবাসী সোমেন মিত্র এবং পরে আবার ঘরে ফেরা সোমেন মিত্র। …

আরও পড়ুন »

দক্ষিণ কলকাতা বনাম রাজ্য, একুশের লড়াইয়ের নয়া আঙ্গিক দিলেন শুভেন্দু

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় দু’দিন আগে তৃণমূলের (AITMC) নেতা-কর্মীরা সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল করার চেষ্টা করছিলেন। ছবিটি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) আর শুভেন্দু অধিকারীর (Shubhendu Adhikari)। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, দিলীপ ঘোষ একটি সিংহাসনসম বৃহৎ কাউচে পায়ের ওপর পা তুলে বসে আছেন আর তাঁর পাশে একটি সাধারণ চেয়ারে বসে …

আরও পড়ুন »

মমতার ‘সংখ্যালঘু সাম্প্রদায়িকতার’ কড়া সমালোচক ছিলেন সোমেন মিত্র, নিজের দলে চাইতেন সাংগঠনিক নির্বাচন

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায়: ১) প্রিয় দা তখন অসুস্থ। সকলের মধ্যে থেকেও নেই। সোমেন দা তখন তৃণমূলে। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ড.মনমোহন সিংহ এসেছেন কলকাতায়। উঠেছেন রাজভবনে। সন্ধেবেলা দেখা করতে গেলেন সোমেন মিত্র। এ কথা ও কথার পর মনমোহন বললেন প্রিয় তো এখন নেই, তুমি চলে এসো। উত্তরে সেদিন স্মিত হেসে ছিলেন সোমেন দা। …

আরও পড়ুন »

সাংগঠনিক নির্বাচন চাইতেন সোমেন দা

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায়: ১) প্রিয় দা তখন অসুস্থ। সকলের মধ্যে থেকেও নেই। সোমেন দা তখন তৃণমূলে। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ড.মনমোহন সিংহ এসেছেন কলকাতায়। উঠেছেন রাজভবনে। সন্ধেবেলা দেখা করতে গেলেন সোমেন মিত্র। এ কথা ও কথার পর মনমোহন বললেন প্রিয় তো এখন নেই, তুমি চলে এসো। উত্তরে সেদিন স্মিত হেসে ছিলেন সোমেন দা। …

আরও পড়ুন »

সভাপতির আসনের দিকে অনেকে তাকিয়ে, প্রেসিডেন্টের চেয়ার অরুণাভ কে চাইছে না তো?

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায়:     সোমেন মিত্র শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার পর প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতির আসন শুন্য। সোমেনের সমগোত্রীয় কোনও নেতা এখন আর পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেসে নেই, সে কথা এক বাক্যে দলের সকলেই স্বীকার করেন। প্রিয়-সোমেন যুগ এখন রাজ্য কংগ্রেসে অতীত। তাঁদের পরবর্তী প্রজন্মের বা প্রায় সমবয়সী নেতাদের মধ্যেই সভাপতি পদের …

আরও পড়ুন »

মুকুলকে ঘরে ফেরার বার্তা মমতার ! কুণালের মন্তব্যে চাঞ্চল্য রাজ্য রাজনীতিতে

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় : মুকুল কে মমতার বার্তা? আর বার্তাবাহক কুণাল ঘোষ? সম্প্রতি রাজ্য রাজনীতি তে মাথা চাড়া দিয়েছে এমনই কয়েকটি প্রশ্ন। কয়েকদিন আগে মুকুল রায়ের সল্টলেকের বাড়িতে হঠাৎ করেই হাজির হন কুণাল ঘোষ। খবর রটে যায় তৃণমূলের এক নেতা, যিনি রাজ্যসভার প্রাক্তন সদস্যও বটে, তিনি মুকুল রায়ের সঙ্গে গোপন বৈঠক …

আরও পড়ুন »

লাউড স্পিকারে আজান ও কিছু ভালোমন্দ কথা

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় : আমায় যদি কেউ ব্যক্তিগত ভাবে জিজ্ঞাসা করে (কেউ করবে না, তবু) তাহলে আমি বলব আজানের সুর আমার বেশ লাগে। ভোরের গাঙ্গেয় বাতাসে যখন এই সুর ছড়িয়ে পড়ে সেই সময় আমি ঘুম থেকে উঠি। শব্দার্থ তো বুঝি না, যাতে বোঝার কিছু নেই, শুধু অনুভব করার আছে, সেই সুর …

আরও পড়ুন »

রাজাবাজার, একবালপুর কেন রেড জোন থেকে বেরোনোর লড়াই তে শরিক হবে না?

সুমন ভট্টাচার্য :   অমর্ত্য সেন আমেরিকায় করোনা নিয়ে লেখার সময় পরিষ্কার উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেছেন করোনায় মার্কিন মুলুকে বেশি মারা যাচ্ছেন কৃষ্ণাঙ্গরা। মোরাদাবাদের ঘটনার পরে উত্তরপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা ইমরান মাসুদ ভিডিয়ো বার্তায় বলেছেন, এইরকম একটা ঘটনা যে গোটা মুসলিম সমাজকে বদনাম করে দিতে পারে, সেটা কি কেউ মোরাদাবাদের লোকদের …

আরও পড়ুন »

মোদির বিকল্প হয়ে উঠতে এবার ‘বুড়ো’ সাজলেন রাহুল, পড়ুন গাঁধির গো অ্যাজ ইউ লাইক

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় : লক ডাউনের সময় সামাজিক দূরত্ব রক্ষার ঠেলায় যখন ধোপা-নাপিত বন্ধ সে সময় ভোল বদল করলেন রাহুল গাঁধি। এতদিন স্কাইপে ভেসে উঠে দেশ ও তাঁর অনুগামীদের বার্তা দিচ্ছিলেন রাহুল, এবার রক্তমাংসের রাহুল সামনে আসতে ধন্দে পড়েছেন তাঁর অনুগামীরাও। এই কি সেই! নতুন রাহুলের চুল কুচকুচে কালো, বাঁ দিকে …

আরও পড়ুন »

টেস্ট : খড়ের গাদায় সুঁচ খোঁজা নয়, মোদি জানেন বিন্দু দিয়েই সিন্ধু

সুমন ভট্টাচার্য : কথায় আছে যার শুরু ভাল, তার শেষও ভাল। এই লকডাউনের পৃথিবীতে বৈশাখ বা নতুন বছর যে অন্যভাবে শুরু হতে যাচ্ছে, তা তো আমরা জানতামই। কিন্তু সেটা যে একেবারেই অন্যভাবে সেটা টের পেলাম যখন দেখলাম বাংলার এক প্রগতিশীল বুদ্ধিজীবী, যাঁর অক্টিভিস্ট কন্যা মাত্র দশ দিন আগে তাঁর মায়ের …

আরও পড়ুন »

করোনা : ভোট না ভেবে রাফ এন্ড টাফ হবার সময় এসেছে দিদি

শ্রীচরণেষু দিদি। করোনা ও তার দমন সংক্রান্ত কিছু কথা আপনাকে ও একই সঙ্গে পাঠকদের নিবেদন করার নিমিত্ত এই খোলা চিঠির অবতারণা। দিদি, আপনি কত বড় প্রশাসক তা প্রমাণ করার সঠিক সময় ও সুযোগ এসেছে। আপনি তা করবেন কি? যদি করেন, তাহলে নবান্নের ওই অবিবেচক আমলার বিরুদ্ধে আইনত কি ব্যবস্থা নেওয়া …

আরও পড়ুন »

মোদির বোনাস, সনিয়া-রাহুলের ঘরে করোনার চেয়ে সাংঘাতিক ‘ধরোনা’ ভাইরাস

সুমন ভট্টাচার্য : জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পরে কি শচীন পাইলট এবং শশী থারুর? যদি তাই হয়, তাহলে সেটা বিশ্ব অর্থনীতির এই মন্দার বাজারে বিজেপির জন্য বা বলা ভালো নরেন্দ্র মোদির সরকারের জন্য বোনাস। আর কংগ্রেসের জন্য করনা ভাইরাসের থেকেও সাংঘাতিক, ‘ধরোনা’ ভাইরাস। যে ভাইরাস কংগ্রেস নেতৃত্বকে কোনও সমস্যাকেই ধরতে দেয় না, …

আরও পড়ুন »

২১-এ সাফ! দিল্লির পুনরাবৃত্তি এড়াতে দলে কু-কথা নিষিদ্ধ করুন অমিত

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায় : টাইমস নাও-এর সাংবাদিক ও সঞ্চালক নবিকার সামনে অমিত শাহকে অস্বস্তিতে পড়তে হল। স্মার্ট অমিত যতই নিজের অস্বস্তিবোধ আড়াল করার চেষ্টা করুন না কেন কু-কথার প্রশ্নে তাঁর অস্বস্তি ধরা পড়েছে চ্যানেলের ক্যামেরায়। অমিত শাহ বলেছেন ‘ভারত পাকিস্তান ম্যাচ’ বা ‘গোলি মারো’, এসব দলের বক্তব্য নয়। তাঁর মতে দলের …

আরও পড়ুন »

কেজরিওয়াল দক্ষিণপন্থী, তিনি ‘ভারত মাতার জয়’ই বলবেন, মন্দিরেই পুজো দিতে যাবেন

  সুমন ভট্টাচার্য : ২০১৫য় যেদিন অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লিতে বিজেপিকে ৬৭-৩এ উড়িয়ে দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে বসেছিলেন, ঠিক সেদিন তাঁর সাক্ষাৎকার নিতে আপ-এর দফতরে পৌঁছেছিলেন সেই সময় ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এর সম্পাদক এবং জনপ্রিয় টেলিভিশন উপস্থাপক শেখর গুপ্ত। আপ-এর দফতরে যাওয়ার এবং দিল্লি বিজয়ের দিনে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের স্বেচ্ছাসেবকদের উৎসব, উচ্ছ্বাস নিয়ে শেখর একটি …

আরও পড়ুন »