Breaking News
Home / TRENDING / চিকিৎসা নগরীর নানা তথ্য

চিকিৎসা নগরীর নানা তথ্য

অনিন্দিতা চৌধুরি :

মানুষের জীবনে রোগভোগ লেগেই আছে।বর্তমান লাইফস্টাইল ও দৈনন্দিন স্ট্রেসের ফলে কঠিন ও জটিল রোগীর সংখ্য়া বেড়েই চলেছে। ভারত বা তার প্রতিবেশী দেশগুলিতে শরীরের যেকোনো কঠিন রোগ নিরাময়ের কথা বললেই আমাদের সবার আগে মনে পরে ভেলরের কথা।ভেলর বলে আমরা যা বুঝি প্রকৃতপক্ষে তার আসল নাম হল-“Christian Medical College & Hospital”বা CMC। ভেলরের এই মাল্টিস্পেশালিটি হাসপাতালটি রোগী ও তাঁর আত্মীয়দের কল্পতরু। এছাড়াও ভেলরে আরও বেশ কয়েকটি হাসপাতাল রয়েছে।
রোগ প্রতিকারের প্রথম ঠিকানা হিসাবে ভেলর জনপ্রিয়।এর প্রকৃত কারণ হল এখানকার উন্নত চিকিৎসাব্যবস্থা, যন্ত্রপাতি,প্রযুক্তি ইত্যাদি।যার ফলে রোগীর রোগ নির্ণয় থেকে শুরু করে নিরাময় সবই নিত্যনৈমিতিক ধারার থেকে কিছুতা তাড়াতাড়ি হয়।
এবার বিষয়টি হল যারা কোনোদিন ভেলর যাননি তাঁরা ঠিক কি করে যাবেন,কোথায় থাকবেন,কি করে ডাক্তার দেখাবেন তার জন্য রইল একগুচ্ছ তথ্য।

কীভাবে যাবেন?
কলকাতা থেকে ভেলর এর দূরত্ব প্রায় ১৭১৬.৯১কি.মি।ট্রেনে করে গেলে নামতে হবে কাটপাডি জংশনে।হাওড়া থেকে কাটপাডি জংশন যেতে সময় লাগে প্রায় ২৫ থেকে ২৯ ঘণ্টা। হাওড়া থেকে কাটপাডি জংশন যাওয়ার জন্য রয়েছে প্রায় ১৬টি ট্রেন, যেমন গুয়াহাটি বেঙ্গালুরু সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস,শিলচর তিরুবনন্তপুরম সেন্ট্রাল সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস,নিউ তিনসুকিয়া বেঙ্গালুরু সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস,হাওড়া যশবন্তপুর উইকলি সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস,কামাক্ষা বেঙ্গালুরু ক্যান্টনমেন্ট উইকলি সুপারফাস্ট হমসফর এক্সপ্রেস,হাওড়া যশবন্তপুর হমসফর এক্সপ্রেস,সাঁতরাগাছি মাঙ্গালুরু সেন্ট্রাল বিবেক এক্সপ্রেস,হাওড়া মাইসোর সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস প্রভৃতি।কাটপাডি থেকে ভেলরের দূরত্ব প্রায় ৮ কিমি। কাটপাডি স্টেশনে নেমে গাড়ি বা বাসে করে যেতে হবে ভেলর।এছাড়াও ফ্লাইটে যেতে হলে নামতে হবে চেন্নাই এয়ারপোর্টে। সেখান থেকে গাড়িতে ভেলরের দুরত্ব ২ ঘণ্টা।

ডাক্তার দেখাবেন কীভাবে?
ভেলরে ডাক্তার দেখাতে গেলে প্রথমে Appointment নিতে হবে। এবার প্রশ্ন কীভাবে নেবেন এই Appointment? তার জন্য রয়েছে দু-ধরনের ব্যবস্থা অনলাইন আর অফলাইন। রোগী ভেলরে যাওয়ার অনেক আগেই অনলাইনে ডাক্তারের Appointment করে রাখতে পারেন। ভেলরে গিয়ে Appointment নিতে চাইলে তার জন্য রয়েছে অফলাইন Appointment-এর ব্যবস্থা।
• Online Appointment:
এই পদ্ধতিতে Appointment নিতে গেলে সময় লেগে যাবে প্রায় ১৫দিন থেকে ৩ মাসের মতো, এছাড়াও ডাক্তার দেখানোর বিভাগ নির্দিষ্ট করে দিতে হয় এই পদ্ধতিতে। তারপর থাকে কিছু নিয়ম যেমন Appointment একবার নিয়ে নিলে তার বিভাগ বদলানো বা appointment বাতিল করার কোনও উপায় নেই এই পদ্ধতিতে। CMC-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট হল- http://www.top10duniya.com/health/cmc-vellore-details-in-bengali/

•Offline Appointment:
CMC-এর প্রধান গেট দিয়ে ঢুকলেই সামনে দেখা যাবে। লেখা রয়েছে “Silver Gate For New Appointment” ।এখানে গিয়ে নিজের রোগের কথা বললেই দপ্তর থেকেই নির্দিষ্ট বিভাগে Appointment করিয়ে দেওয়া হয়। Appointment পেতে পেতে সময় লেগে যেতে পারে তিন চার দিন বা এক মাস।

কি কি ধরণের Appointment করা যায় ?
দুই ধরণের Appointment করা হয়ে থাকে।

•General Appointment
এক্ষেত্রে আপনাকে দেখবেন জুনিয়র ডাক্তারেরা।ফলে অনলাইন হোক কিংবা অফলাইন Appointment পেয়ে যেতে পারেন সহজেই।

•Private Appointment
এক্ষেত্রে রোগীকে দেখবেন সিনিয়র ডাক্তার নিজেই । সেক্ষেত্রে Appointment পেতে তুলনায় সময় লাগবে বেশি।

ডাক্তারের খোঁজঃ
বিভাগভেদে CMC তে প্রচুর নামকরা কয়েকজন ডাক্তারও রয়েছেন। রোগের রকমভেদে অনুযায়ী রোগীর পরিবার বেছে নেন সঠিক ডিপার্টমেন্ট। যেমন বলা যায় কান-গলা-নাক এর জন্য রয়েছে ENT,ক্যান্সারের জন্য রয়েছে Oncologist ইত্যাদি।
ভেলরের ডাক্তারেরা প্রত্য়েকেই স্বক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত। এঁদের মধ্য়ে কয়েকজনের নাম

Dr. Regi Thomas ENT Surgeon
Dr.Raju Titus ChackoMedical Oncologist
Dr. S.R NandakumarGeneral Physician
Dr. Ashol NattanilOphthalmoligist
Dr.E.SivakumarENT
Dr.K.C Appu Cardiologist

থাকবেন কোথায়?
ভেলরে রোগীদের থাকার জায়গার কোনও অভাব নেই। ৫০০ থেকে শুরু করে প্রায় ৪০০০ টাকা প্রতিদিন রেটে হোটেল ভাড়া পাওয়া যায় ভেলরে। কয়েকটি হোটেলের নাম হল

oHotel River View 2500/- day
oHotel Mount Paradise 990/-day
oHotel Benzz Park 2542/-day
oHotel Palm Tree 499/-day
oHotel Elite Krishna 800/-day
oBlue Diamond Guest House
oHotel Jayanti Tower
oKMR Lodge

এছাড়াও রয়েছে আরও অনেক থাকার জায়গা।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ
হাসপাতালে রয়েছে মোট চারটি বিল্ডিং।
OPD Building
ISSCC Building
PMR Building
WARD Building

OPD Building
Outdoor Patient দের জন্যই প্রধানত এই বহুতল। একতলায় সমস্ত ধরণের টেস্ট করা হয়ে থাকে।যেমন রক্ত পরীক্ষা, মল, মূত্র, থুথু এছাড়াও এক্স-রে বা অন্যান্য সমস্ত পরীক্ষা এখানেই হয়। ডাক্তারের দেওয়া স্লিপ নিয়ে যেতে হবে ক্যাশ কাউন্টারে। সেখানে টাকা জমা দিয়ে কোথায় কোন ঘরে টেস্টটা করতে যেতে হবে তা কাউন্টার থেকেই বলে দেওয়া হয়।
MRO Counter –এ Appointment এর কপি জমা দিতে হয় সকাল সাড়ে দশটার মধ্যে ২১০ নম্বর ঘরে।

ISSCC Building
এই বহুতলে প্রধানত New Appointment ,Repeat Appointment, Pharmacy ,CRISS Card,ইত্যাদি সংক্রান্ত কাজগুলো করা হয়ে থাকে।এই বহুতলের সবচেয়ে উপরের তলাতেই বসেন ডাক্তারেরা।
সাধারণত ৪ থেকে ১০ নম্বর কাউন্টারে নগদে New Appointment-এর পেমেন্ট নেওয়া হয়।
Repeat Appointment-এর ক্ষেত্রেও নিয়মটা প্রায় একই।
Pharmacy থেকে সাধারণত তিন মাসের ওষুধ দেওয়া হয়।
এই হাসপাতালে পেমেন্টের জন্য একধরনের কার্ড পাওয়া যায়। যা একবার তৈরি করে নিলে হাসপাতালের যাবতীয় সবধরণের পেমেন্টে করা যাবে এই কার্ডের মাধ্যমেই।

Appointment দিন পরিবর্তনঃ
Appointment এর জন্য নির্ধারিত দিন পরিবর্তন করতে চাইলে প্রথমেই যেতে হবে ISSCC Building এ হেল্পলাইন ডেস্কে লাইন দিয়ে নিজের অসুবিধার কথা বলে বদলে নেওয়া যেতে পারে appointment র দিন।

PMR Building
এই বহুতলকে ফিজিওথেরাপি বিভাগ বলা যেতে পারে। এখানে বিভিন্ন ধরণের যন্ত্রপাতি,রোগীর বিষেশ জুতো,সিলিকন ইত্যাদি থাকে।এসব এর জন্য এই বহুতলে আসতে হতে পারে।

WARD Building
এই বহুতলে রোগী ভর্তি করা হয়। সার্জারিও হয় এইখানেই।

 

Spread the love

Check Also

দিদির জন্মদিন: বসনভূষা মলিন হলো ধূলায় অপমানে

দেবক বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ দিদির জন্মদিন। জন্মদিন নিয়ে বিতর্ক থাকলেও সরকারি খাতায় এটাই দিদির জন্মদিন। সফিসটিকেটেড …

রাজ্যে বিজেপির ভোট পরবর্তী হিংসার দাবির আবহেই ‘বিজেপির মারে’ মৃত্যু ত্রিপুরার তৃণমূল নেতার

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। গত ২৮ শে আগস্ট তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে মুজিবর ইসলাম মজুমদারের …

আই লিগে বড় জট, করোনায় আক্রান্ত ৪৬ জন

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। আপাতত আই লিগ অথৈ জলে। কারণ কলকাতায় জৈব সুরক্ষা বলয়ে ফাটল ধরেছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *