Home / TRENDING / Anish Khan: সিবিআই তদন্তের দাবি, এখন আর কতটা পলিটিকালি কারেক্ট?

Anish Khan: সিবিআই তদন্তের দাবি, এখন আর কতটা পলিটিকালি কারেক্ট?

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো।

আনিস খান। ছাত্র বিক্ষোভ। রাজ্যের সিট গঠন। পরিবারের সিবিআই তদন্তের দাবি…

এই পর্যন্ত ঠিকই ছিল। গোল বাঁধছে তখন, যখন রিজওয়ানুর প্রসঙ্গ টেনে এনে সিবিআই তদন্ত চাওয়া নিয়ে মমতাকে নিশানা করছেন বিরোধীরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তৎকালীন বিরোধী নেত্রীর একটি ভিডিও ভাইরাল করা হয়েছে। যেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন, সিআইডি পুলিশেরই একটি অংশ। সুতরাং যারা দোষ করেছে তাদের কি তদন্ত ভার দেওয়া যায়!
২০০৭-এর পর এই এতগুলো বছরে গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গেছে। ১৫ বছর ধরে চলছে রিজওয়ানুর মামলা। নিষ্পত্তি কবে? কেউ নিশ্চিত করে জানে না। সিবিআই অবশ্য চার্জসিট প্রস্তুত করেছিল। সিবিআই জানিয়েছিল, খুন নয়, আত্মহত্যা। তবে আত্মহত্যার পিছনে প্ররোচনা ছিল।
খুচরো শাস্তিও পেয়েছিলেন কয়েকজন। তবে, সুইসাইড নোটে পুলিশ কর্তা জ্ঞানবন্ত সিংহের নাম থাকলেও সিবিআই চার্জসিটে তাঁর নাম ছিল না। টোডি পরিবারের গায়ে সামান্য আঁচটুকুও লাগেনি।

এই ১৫ বছরে গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গেছে। এই রাজ্যের সবচেয়ে আলোচিত কেলেঙ্কারি, চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্ত করেছে সিবিআই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারংবার সিবিআই কে কেন্দ্রীয় সরকারের স্বার্থসিদ্ধির হাতিয়ার বলে দেখাতে চেয়েছেন। বলেছেন, ভোট এলেই এইসব তদন্তকারী সংস্থা কে কাজে লাগায় মোদি সরকার।
অন্যদিকে, বিরোধীরা (বাম-কংগ্রেস) বলেছে, চিটফান্ড বা নারদা কাণ্ডে কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলি যা করে, তা নেহাতই নাটক। মোদি-দিদি সেটিং হয়ে রয়েছে।
মোটের ওপর রাজ্যের সরকার ও বিরোধীদের বক্তব্য থেকে এইটুকু পরিস্কার, যে তারা উভয়েই নিজেদের মত করে সিবিআই-এর সততা নিয়ে অবিশ্বাসী বা সন্দিহান।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিবিআই তদন্তের দাবি মানবেন না, এটা স্বাভাবিক। কারন, ২০০৭ আর ২০২২ এর প্রেক্ষিত সমান নয়। একদা, মমতা কথায় কথায় সিবিআই চাইতেন, একথা যেমন সত্যি। একই সঙ্গে এটাও সত্যি, তৎকালীন বামফ্রন্ট সরকার কখনোই চাইতেন না সিবিআই কে। কেন চাইতেন না? স্বাভাবিক কারনেই চাইতেন না। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা কে ডেকে এনে নিজের তদন্তকারী সংস্থার প্রতি অনাস্থা প্রদর্শন করা কোনো রাজ্য সরকারেরই অভিপ্রেত নয়।

তবু, মমতা যদি সিবিআই তদন্তেরদাবি মেনেও নেন, কী নিশ্চয়তা আছে যে সিবিআই এর চার্জশিট পছন্দ না হলে সিবিআই-দিদিভাই গটআপ বলে চিৎকার করবে না এই বাম-কংগ্রেস?

সিবিআই এর ওপর সত্যিই কি ভরসা আছে আনিশের পরিবারের? নাকি জেনে বা না জেনে তাঁরা কোনো রাজনৈতিক শক্তির হাতের পুতুল হয়ে যাচ্ছেন? কোন যুক্তিতে শোকাহত এই পরিবারের সিবিআই এর ওপর এত ভরসা? এই মুহূর্তে পুত্র হারানো পিতা-মাতার, রাজ্য পুলিশের ওপর ঘৃণা, অবিশ্বাস, ক্ষোভ, আক্রোশ থাকবে। এটাই স্বাভাবিক। তারা এখনই ভেবে উঠতে পারবেন না যে সব পুলিশ এক নয়। হয়ত পরে বুঝবেন। কিন্তু ঘোলা জলে মাছ ধরতে গিয়ে রাজ্যের অ-বিজেপি বিরোধীরা যদি সিবিআই তদন্ত দাবি করে, তাহলে, এই বেদনাঘন আবহেও তাদের দাবি হাসির খোরাকের যোগান দেয় বৈ কি!

Spread the love

Check Also

আপনারা সরকারের মুখ বলে আধিকারিক দের বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।

চ্যানেল হিন্দুস্থান ডেস্ক: রাজ্যের আমলাদের উজাড় করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার প্রথমে নতুন করে সংস্কার হওয়া …

WBCS দের সভা থেকে কেন্দ্রকে তীব্র আক্রমণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

চ্যানেল হিন্দুস্থান ডেস্ক: WBCS দের সঙ্গে বৈঠক, আর সেখান থেকেই করা বার্তা রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের। …

বন্ধ ব্যান্ডেল জংশন

চ্যানেল হিন্দুস্থান ডেস্কঃ রুট রিলে ইন্টারলকিং কেবিন স্থানান্তর ও থার্ড লাইন সম্প্রসারণের জন্য হাওড়া-বর্ধমান মেইন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *