Breaking News
Home / TRENDING / দুর্নীতির অভিযোগে তৃণমূল থেকে সাসপেন্ড বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি

দুর্নীতির অভিযোগে তৃণমূল থেকে সাসপেন্ড বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি

নীল রায়।

এ যেন ভুতের মুখে রাম নাম ! দুর্নীতির অভিযোগে খোদ জেলা পরিষদের সভাধিপতিকেই শাস্তি দিল তৃণমূল (TMC)। সূত্রের খবর, দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরীর বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই দল থেকে সাসপেন্ড করা হল বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতিকে। আপাতত ৬ মাসের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে তাঁকে। এই সময়কালে তিনি দলের কোনও ছোটবড় কর্মসূচিতে যোগ দিতে পারবেন না।

তৃণমূল সূত্রে এমনই খবর জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, তাঁকে দল থেকে সাসপেন্ডের সিদ্ধান্ত নেন খোদ তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondol)। অথচ বিকাশ রায় চৌধুরী অনুব্রত ঘনিষ্ঠ বলেই জেনে এসেছে বীরভূমের রাজনৈতিক মহল। প্রসঙ্গত, বিগত কয়েকদিন ধরে ব্লকে ব্লকে কর্মী সম্মেলন করছেন অনুব্রত মণ্ডল। সেই কর্মীসভাতেই বিকাশ রায়চৌধুরীর বিরুদ্ধে তাঁর কাছে অভিযোগ জমা পড়ে বলে জানা গিয়েছে।

পাশাপাশি,জেলা সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে সরব হন তৃণমূল নেতা-কর্মীরা। এরপরই রবিবার সন্ধ্যায় বোলপুরে জেলা কার্যালয়ে দলীয় বৈঠক বসে বলে তৃণমূলের বীরভূম (Birbhum) জেলা নেতৃবৃন্দ। সেখানেই বিকাশ রায়চৌধুরীকে দল থেকে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নেন অনুব্রত মণ্ডল। তবে সভাধিপতিকে সাসপেন্ড করার আগে একদফায় কালীঘাটে ফোন করেন অনুব্রত মণ্ডল। তারপরেই নিজের সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেন কেষ্ট !

Spread the love

Check Also

‘নৃশংসতার কোনও সীমা নেই’ উন্নাওয়ের নির্যাতিতার মৃত্যুতে টুইট মুখ্যমন্ত্রীর

ওয়েব ডেস্ক: উন্নাওয়ের নির্যাতিতার করুণ পরিণতিতে টুইট করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার সকাল ১১.৫৫ নাগাদ …

উন্নাও কান্ডের প্রতিবাদে দিল্লিতে ৬ বছরের মেয়েকে জ্বালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা মা’য়ের

নিজস্ব সংবাদদাতা: গতকাল ভোরে হায়দরাবাদের পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত্যু হয়েছে পশুচিকিৎসকের ধর্ষণ ও খুনে অভিযুক্তেরা, আর …

এবার এনকাউন্টার নিয়ে প্রশ্ন তুললেন অধীর

সূর্য সরকার । তেলেঙ্গানার তরুনীর ধর্ষণকাণ্ড তারপর তাকে পুড়িয়ে মারা। বিগত এক সপ্তাহ ধরে ঘটনায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *