Breaking News
Home / TRENDING / গৃহবন্দি? উপলব্ধি করুন সুখী গৃহকোণের মহিমা, উপায় বাতলেছেন মনোবিদরা

গৃহবন্দি? উপলব্ধি করুন সুখী গৃহকোণের মহিমা, উপায় বাতলেছেন মনোবিদরা

সায়ন্তনী সেনগুপ্ত।

এমন সময় আগে দেখেনি শহর। সারা পৃথিবীর দুঃসময় গভীর ছাপ ফেলেছে এই দেশে, শহরে। আশঙ্কা আতঙ্কে ভুগছেন মানুষ। করোনা থেকে বাঁচতে সামাজিক দূরত্বের যে কথা বারবার বলা হয়েছে তার প্রভাব পড়ছে জনমানসেও। মানুষ আটকে গিয়েছেন ঘরে। আপাতত জীবন বাঁচাতে এর বিকল্প নেই। কিন্তু এর সঙ্গে সঙ্গে মনকেও ঠিক রাখা দরকার বলছেন চিকিৎসকরা। গৃহবন্দী দশাকে শাস্তি না ভেবে সুরক্ষা ভাবার পরামর্শ তাঁদের।

মনরোগ বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এই সময় এমন অনেক কাজ করা যায় যা মনকে ভলা রাখে। গল্পের বই পড়া, বাগানের পরিচর্যা এসবই এই সময় খুবই উপযোগী। মন ভাল রাখতে বাগানের কাজের জুড়ি মেলা ভার। বাচ্চা থেকে বয়স্ক মানুষ ফুল ভালোবাসেন না এমন কাউকে পাওয়া যায় না। অবসাদ কাটাতেও ফুল অত্যন্ত উপযোগী। তবে মালি বা বাইরের লোক নয়। বাড়ির বারান্দায় নিজেই বাগানের কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। বলা বাহুল্য বই পড়া বা গান শোনার কোনও বিকল্প নেই। গান স্ট্রেস কাটাতে অত্যন্ত উপযোগী। মনরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে আর একটা কাজও করা যেতে পারে যা একাকীত্বের কষ্ট কমাবে। বাড়ির জানালা দিয়ে মুখ বাড়িয়ে পাশের বাড়ির প্রতিবেশীর সঙ্গে কথা বলা যেতে পারে। যে প্রতিবেশীর সঙ্গে নিয়মিত সুখ দুঃখের গল্প হয় তাঁর সঙ্গে একদম কথা বন্ধ করে দিলে বিছিন্ন বোধ করবেন বাড়ির বয়স্ক মানুষরা। কিন্তু বাড়ির বাইরে যাওয়া নিষেধ।

অতএব উপায় ?

বাড়ি থেকেই এ বাড়ি ও বাড়ি কথা বলা। তবে করোনা নিয়ে কথা বলতে একদম মানা করছেন চিকিৎসকরা। হাসি ঠাট্টা গল্প গুজব চলুক বরং। সেটা অনেক ভাল তাঁদের মতে। যাঁরা জিমে যান নিয়মিত তাঁরা বাড়িতেই শরীর চর্চা করতে পারেন। হালকা খাওয়া দাওয়ার সঙ্গে শরীর চর্চা খুব জরুরী এই সময়। আর একটা কাজ করা যেতে পারে বলছেন অনেকেই। যে সোস্যাল মিডিয়া অনেক সময় আমাদের ক্ষতির কারণ হয় চলে এখন এই সোস্যাল মিডিয়াকেই ভাল কাজের হাতিয়ার করা যায়। ভাল গান , ভাল কথা শেয়ার করা যেতে পারে সেখানে। এছাড়া পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর এর থেকে ভাল সময় যে আর হয়না তা বলাই বাহুল্য। সবাই সবার সঙ্গে থাকলেও ভয়ও কাটবে আর মনও ভাল থাকবে।

Spread the love

Check Also

তবলিঘ-ই-জামাতের সদস্যরা কোনও অভব্যতা করছেন না চিকিৎসকদের সঙ্গে : এইমস

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। তবলিঘ-ই-জামাতের (Tablig-E-Jamat) সদস্যরা কোনও রকম অভব্যতা করেননি চিকিৎসকদের সঙ্গে। বরঞ্চ সহযোগিতাই করছেন …

করোনা-লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যেই কোন্নগরে শক্তিশালী বোমার আতঙ্ক

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। সাতসকালে কোন্নগরে বোমাতঙ্ক। সোমবার রাতে কোন্নগরের ধর্মডাঙ্গায় বোমার মতো কিছু পরে থাকতে …

দেশীয় শিল্পের বিকাশ ঘটানোর সঠিক সময় এটাই :মোদী

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। সারা বিশ্বে করোনার অর্থনৈতিক প্রভাব যে মারাত্মক পড়তে চলেছে সেই বিষয়ে আগেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!